অবশেষে উপযুক্ত জবাব দিলেন তামিম

অধিনায়ক তামিমকে নিয়ে আলোচনা হয় প্রথম থেকেই। সেই আলোচনা আবার জেগে উঠে বঙ্গবন্ধু টি- টুয়েন্টি কাপে প্রথম ম্যাচে জেমকন খুলনার কাছে শেষ ওভারে বরিশালের অবিশ্বাস্য হারে। শেষ ওভারে মিরাজের হাতে বল তুলে দেওয়াতেই অনেকেই তামিমের অধিনায়কত্ব নিয়ে প্রশ্ন তোলেন।

এমন ধাক্কার পর মনস্তাত্ত্বিকভাবে কিছুটা ভেঙ্গে পড়ার কথা ফরচুন বরিশালের ও তামিম ইকবালের। কিন্তু না, বরং সেই চাপ সামলে দুই ম্যাচ জিতে আসা মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহীকে তারা হারাল ৫ উইকেটে। আর এই ম্যাচে সামনে থেকে দলকে নেতৃত্ব দিয়ে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ব্যাটিং করে দলকে জিতিয়েছেন তামিম। যেন দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে সব সমালোচকদের দাঁতভাঙা জবাব দিয়েছেন টাইগার ওয়ানডে অধিনায়ক।

এদিন রাজশাহীর করা ১৩২ রান ৬ বলে আগে পেরিয়ে যায় বরিশাল। অধিনায়ক তামিম ৬১ বলে ১০ চার, ২ ছক্কায় করেন অপরাজিত ৭৭ রান। রান তাড়ায় এবারও অবশ্য শুরুটা ভাল হয়নি বরিশালের। তামিমের সঙ্গে ওপেন করতে নেমে মেহেদী হাসান মিরাজ টিকেছেন কেবল ৫ বল। মাত্র ১ রান করে আপার কাটে ক্যাচ দিয়েছেন থার্ড ম্যানে।

এরপর খানিকটা সময় একটু চাপ ছিল। তবে পারভেজ হোসেন ইমনের সহজ ক্যাচ ফেলে দেওয়ার পর সেই চাপ হয় আলগা। অফ স্পিনার শেখ মেহেদী হাসানকে টার্গেট করে এগিয়ে এসে রান বাড়ান তামিম। পারভেজও বাড়াতে থাকেন দ্রুত রান। তবে মেহদীর বলেই বোল্ড হয়ে ইতি তার।

পরে তৌহিদ হৃদয়কে নিয়ে এগুতে থাকেন তামিম। বরিশাল অধিনায়ক ৪৫ বলে তুলে নেন ফিফটি। ৪৬ রানের জুটির পর ২১ রান করে ফেরেন বেশ মন্থর খেলা হৃদয়। আফিফ হোসেন এসে প্রথম বলেই দেন উইকেটের পেছনে ক্যাচ। মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধ জোড়া আঘাত দিলেও তাদের কম পূঁজির কারণে আক্ষেপই বাড়ছে তখন।

শেষ দিকে ইরফান শুক্কুরও রান আউট হয়ে যান। তবে নির্ভরতার প্রতীক হয়ে দলকে তীরে ভিড়িয়েছেন তামিম। শেষ দিকে কিছুটা উত্তেজনা ছড়ালে দুই ছক্কা মেরে তা আড়াল করে দেন তিনি। পুরো ইনিংসে বেশ সলিড ব্যাট করেছেন বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক। দলের ব্যাটিং গভীরতার হাল জেনে শেষ পর্যন্ত টিকে ম্যাচ করেছেন তিনি।

Author: hasib

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *