ইসলামকে ভালোবেসে মুসলিম হলেন তামিল অভিনেত্রী

ইসলামের জীবন দর্শন দ্বারা প্র’ভাবি’ত হয়ে ইসলাম ধ’র্ম গ্রহন করেছেন দক্ষিণ ভারতের জ’নপ্রিয় অ’ভিনেত্রী ও তারকা মনিকা। মু’সলমা’ন হবার প’র তিনি নিজের জ’ন্য নতুন নাম পছন্দ করেছেন এমজি রহিমা। তেলেগু, মালায়লাম এবং কা’ন্নাড়া ছবি’তে অ’ভিনয় করেছেন তিনি।

এ প’র্যন্ত তার অ’ভিনীত সিনেমা’র সংখ্যা ৭০ ছাড়িয়েছে।এক প্রেস কনফারেন্সের মাধ্যমে তিনি নিজের ইসলাম ধ’র্ম গ্রহনের কারণ ব্যাখ্যা করেন। প্রেস ব্রিফিং এ মনিকা (নতুন নাম রহিমা) ব’লেন, আমি টাকা কিংবাবপ্রেমের টানে ইসলাম ধ’র্ম গ্রহণ করিনি।

ইসলামের নিয়’ম কানুন ও রীতিনীতি পছন্দ করেই আমি এ ধ’র্ম গ্রহন করেছি। মনিকা চলচ্চিত্র জগতে পা রাখেন শি’শুশিল্পী হিসেবে।ছোট বেলায় অ’ভিনয়ে তিনি তামি’ল নাডুর জাতীয় পুরষ্কা’র অর্জ’ন করেন। ইসলাম ধ’র্ম গ্রহনের প’র সিনেমায় অ’ভিনয় করবেন না ব’লে প’রিষ্কা’র জানিয়ে দেন।

চেন্নাইয়েরমাধুরা শহরের উদ্যোক্তা মালিকের স’ঙ্গে তার বি’য়ে হয় ২০১৫ সালের ১১ই জানুয়ারি। মনিকার পিতার ঘ’নিষ্ঠ ব’ন্ধুর ছেলে মালিক। জ’ন্মের প’র রেখা মা’রুথিরা’জ নামে বেড়ে উঠেন মনিকা।

প’রে তামি’ল এবং তেলেগু সিনেমায় অ’ভিনয় করতে এসে তার নাম হয় মনিকা। মালায়লাম সিনেমায় অ’ভিনয় করতে এসে আবারও তার নাম প’রিবর্তন করে রাখা হয় পারভানা। তার অ’ভিনীত সিনেমা গু’লির মধ্যে ই’নিদু ই’নিদু কাদাল ই’নিদু, ইসাই আরাসান ২৩ত্ম পু’লিকেসি, ভারনাম এন্ড জান্নাল অরাম জ’নপ্রিয়।

আরও পড়ুন=নয়াদিল্লি, ২১ নভেম্বর- ক্রিকেট মাঠে স’বচেয়ে ঠাণ্ডা মাথার খেলোয়াড় হিসেবে প’রিচিত ভারতের ইতিহাসের সফলতম অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি।

খেলোয়াড়ি জীবনে খুব স’ময়ই মাঠে বা মাঠের বাইরে রাগতে দেখা গেছে ধোনিকে। যে কারণে তার নামই হয়ে গেছিল ‘ক্যাপ্টেন কুল।

তবে ধোনিকেও রাগাতে পারেন একজ’ন। কে পারেন ধোনিকে রাগাতে?- এমন প্রশ্নের জবাবটা শুধুমাত্র ধোনি নিজে কিংবা তার কাছের কেউই দিতে পারবেন। মাঠের ভে’তরে

প্রা’য় স’ব প’রিস্থিতিই নিজের মতো সামাল দেন ধোনি। তবে মাঠের বাইরে তাকে রাগাতে পারেন শুধুমাত্র স্ত্রী সাক্ষী ধোনি।

নিজের জ’ন্ম’দিনে এ ক’থা জানিয়েছেন সাক্ষী।বৃহস্পতিবার ছিল ধোনির স্ত্রী সাক্ষীর ৩২তম জ’ন্ম’দিন। যা উদযাপন করতে তার স’ঙ্গে এক লাইভ আড্ডার ব্য’বস্থা করে

ধোনির আ’ইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজি চেন্নাই সুপার কিংস। যেখানে প্রশ্ন রাখা হয়, ‘ধোনিকে রাগাতে পারেন কে?’ উত্তরে নিজের নামই ব’লেছেন সাক্ষী।

Author: hasib

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *